নির্বাচনী আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নারায়ণগঞ্জে ১১ম্যাজিস্ট্রেট

মনির হোসেন : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যেকোনো নির্বাচনী অপরাধের সংক্ষিপ্ত বিচারিক আদালত পরিচালনার জন্য নারায়ণগঞ্জে নেমেছে প্রথম শ্রেনীর ১১জন জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট। ভোট গ্রহনের পূর্বে এবং ভোট গ্রহনের পরে সহ মোট ৫দিন  নারায়ণগঞ্জের ৫টি নির্বাচনী এলাকায় এই আদালত সমূহ পরিচালনা করবেন।

শুক্রবার (৫জানুয়ারী) সকাল থেকেই দায়িত্বপ্রাপ্ত ম্যাজিষ্ট্রেটগন বিভিন্ন এলাকায় তাদের নিজ নিজ আদালত পরিচালনার জন্য যোগদান করেছেন।তারা নির্বাচনী অপরাধ সমূহ আমলে নিবেন এবং সংক্ষিপ্ত পদ্ধতিতে বিচার কাজ পরিচালনা করবেন।

নির্বাচনী অপরাধগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে,নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত ব্যাক্তি বা ভোটারকে ভয়-ভীতি প্রদর্শন বা সহিংস কাজ করা, কোন নির্দিষ্ট ভোটারকে ভোট না দিতে প্ররোচিত করা,একই কেন্দ্রে একাধিক বা একাধিক ভোট কেন্দ্রে ভোট দেয়া,ভোট কেন্দ্রে নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকারী কর্মকর্তাদের কর্তব্য পালনে হস্তক্ষেপ করা,ভোট কেন্দ্র হতে ব্যালট পেপার বাহির করা,কোন ব্যালট বাক্স বা ব্যালট পেপারের প্যাকেট নষ্ট করা বা নিয়ে যাওয়া,ঘুষ,ছদ্মবেশ ধারন বা অন্যায় প্রভাব বিস্তার করা।

নির্বাচনী এলাকায় যোগদানকৃত ম্যাজিষ্ট্রেটগন হচ্ছেন, নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ কাউছার আলম ও শামসাদ বেগম, নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াইহাজার) নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ শামছুর রহমান ও মোঃ নূর মহসিন, নারায়ণগঞ্জ-৩ (সোনারগাঁও) নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট শাফিয়া শারমিন ও কাজী মোহাম্মদ মোহসেন, নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা ও সিদ্ধিরগঞ্জ) নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট নুসরাত সাহারা বিথী ও নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোহাম্মদ বদিউজ্জামান, নারায়ণগঞ্জ-৫ (বন্দর ও নারায়ণগঞ্জ সদর) নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সানজিদা সরওয়ার,নারায়ণগঞ্জ জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার মুক্তা মন্ডল ও বিজ্ঞ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট(ঢাকা) সাইফুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *