কারাগারে রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুল 

রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক ) সাবেক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আজিজুল হককে দুর্নীতির মামালায় কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। ঢাকা মহানগরের জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন মঙ্গলবার এই আদেশ দেন।

 এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন দুদকের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর।

পিপি মাহমুদ হোসেন বলেন, জালিয়াতির মাধ্যমে পরিত্যক্ত সম্পত্তি হস্তান্তর ও নামজারি অনুমোদনের অভিযোগে রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুল হকসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে গত ফেব্রুয়ারিতে মামলা হয়। সেই মামলায় মঙ্গলবার  আজিজুল হক আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। এদিকে দুদকের পক্ষ থেকে জামিন আবেদনের বিরোধিতা করে আদালতে বক্তব্য উপস্থাপন করা হয়। উভয় পক্ষের শুনানি নিয়ে আদালত আজিজুল হককে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলায় যে পরিত্যক্ত সম্পত্তির কথা বলা হচ্ছে, সেটি হলো গুলশান-২-এর ১০৪ নম্বর সড়কে অবস্থিত ২৯ নম্বর বাড়িটি (সিইএন (ডি)-২৭) । এটি সাবেক ফুটবলার এবং আওয়ামী লীগ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য আবদুস সালাম মুর্শেদী দখলে রেখেছেন বলে অভিযোগ।

পরিত্যক্ত সম্পত্তির ‘খ’ তালিকাভুক্ত এই বাড়ি দখলে রাখার অভিযোগ তুলে সালাম মুর্শেদীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নিষ্ক্রিয়তা চ্যালেঞ্জ করে ২০২২ সালের ৩০ অক্টোবর রিটটি করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সৈয়দ সায়েদুল হক (বর্তমানে সংসদ সদস্য)। প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ২০২২ সালের ১ নভেম্বর হাইকোর্ট রুল দিয়ে বাড়ি–সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় নথিপত্র হলফনামা আকারে দাখিল করতে নির্দেশ দেন। রুলের ওপর চূড়ান্ত শুনানি শেষে গত ১৯ মার্চ হাইকোর্ট রায় দেন। তবে গত ২৪ মার্চ ঢাকার গুলশান-২ নম্বরে অবস্থিত যে বাড়িটি সংসদ সদস্য আবদুস সালাম মুর্শেদী দখলে রেখেছেন বলে অভিযোগ, সেই সম্পত্তির দখল ও অবস্থানের ওপর আট সপ্তাহের জন্য স্থিতাবস্থা বজায় রাখতে আদেশ দেওয়া হয়েছে। হাইকোর্টের রায় স্থগিত চেয়ে সালাম মুর্শেদীর করা আবেদনের শুনানি নিয়ে চেম্বার বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম এ আদেশ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *