খুলনার সমাবেশে নৌকায় ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা জনগণকে আবারও তাঁদের সেবা করার সুযোগ দিতে ‘নৌকায়’ ভোট দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আরেকবার সেবা করার সুযোগ দেবেন, সেই আহ্বান জানাই।’ আগামী নির্বাচনে নৌকায় ভোট প্রত্যাশা করে ওয়াদা চাইলে উপস্থিত জনতা দুই হাত তুলে সমস্বরে সাড়া দেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার(১৩নভেম্বর) বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউস মাঠে এক মহাসমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন। খুলনা মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগ এই সমাবেশের আয়োজন করে।

সমাবেশের আগে ২ হাজার ৫৯৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ২৯টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী। এসব প্রকল্পের মধ্যে সমাপ্ত ২৪টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন এবং বাকি পাঁচটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নৌকা স্বাধীনতা দিয়েছে, নৌকা উন্নয়ন দিয়েছে। আপনারা নৌকায় ভোট দিয়েছিলেন বলেই আজকে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছি। এই নৌকাই দেবে ২০৪১ সালের স্মার্ট বাংলাদেশ।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের স্মার্ট জনগোষ্ঠী হবে, স্মার্ট সরকার হবে, স্মার্ট অর্থনীতি হবে, স্মার্ট সমাজ হবে। জাতির পিতার স্বপ্ন পূরণ করে আধুনিক প্রযুক্তিজ্ঞানসম্পন্ন উন্নত-সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ আমরা তৈরি করে দিয়ে যাব।’

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, আগামী নির্বাচনের সময় একটা বিষয়ে সবাইকে নজর রাখতে হবে, বিএনপি জানে যে ২০০৮ সালের নির্বাচনে তারা মাত্র ৩০টি আসন পেয়েছিল। তাদের নেতা নেই, মুণ্ডুহীন একটা দল। একজন পলাতক আসামি আর একজন সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কারাগারে। সেই দল এ দেশে নির্বাচন হতে দিতে চায় না। দেশে একটি অস্বাভাবিক পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে চায়।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘কেউ যদি এভাবে গাড়িতে আগুন আর মানুষকে আগুন দিয়ে পোড়াতে চেষ্টা করে, ওই হাত সেই আগুনে পুড়িয়ে দেবেন। আর উপযুক্ত শিক্ষা দিয়ে দেবেন, যাতে এ দেশের মানুষের কোনো ক্ষতি করতে আর কেউ সাহস না পায়।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমি দেখেছি সেই পোড়া মানুষগুলোর দুরবস্থা, চোখে পানি রাখা যায় না।’ তিনি বলেন, ‘ওদের মধ্যে মনুষ্যত্ববোধ নেই। দেখেছি, একজন পুলিশ সদস্যকে কীভাবে পিটিয়ে হত্যা করেছে। যে গরিব মানুষ, চাকরি করত। কীভাবে সাংবাদিকদের বেদম পিটিয়েছে। কাজেই ওই ধরনের ঘটনা যেন আর ঘটাতে না পারে।’

আওয়ামী লীগের সভাপতি আরও বলেন, ‘প্রতিটি এলাকায় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা মানুষের নিরাপত্তা দেবেন। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থার পাশে থেকে আপনারাও মানুষের নিরাপত্তা দেবেন, সেটাই আমি আহ্বান জানাচ্ছি।’

সমাবেশে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন, শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল, শেখ সারহান নাসের তন্ময় প্রমুখ।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও খুলনার মেয়র তালুকদার আবদুল খালেক। এর আগে প্রধানমন্ত্রী খুলনা বিভাগের বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় যোগ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *