তারেক-জুবাইদার সাজার প্রতিবাদে বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল, শুক্রবার সমাবেশের ঘোষণা

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তাঁর স্ত্রী জুবাইদা রহমানকে দণ্ড দেওয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল শেষে সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। আগামী শুক্রবার বেলা দুইটায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করবে দলটি।

আদালত রায় ঘোষণার পর আজ বুধবার বিকেলে তাৎক্ষণিকভাবে বিক্ষোভ মিছিল করে বিএনপি। রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত ওই মিছিল শেষে কর্মসূচি ঘোষণা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালাম। তিনি বলেন, আগামী শুক্রবার বেলা দুইটায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করা হবে।

বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলের সময় নয়াপল্টনসংলগ্ন নাইটিঙ্গেল মোড়ে বিপুলসংখ্যক পুলিশ ছিল। তবে মিছিলে বাধা দেয়নি পুলিশ।

নয়াপল্টনে বিক্ষোভ মিছিল শেষে আয়োজিত সভার সভাপতি ছিলেন আবদুস সালাম। এই কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লা বুলু। দলটির এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, ‘তারেক রহমান ও তাঁর স্ত্রী জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে যে রায় হয়েছে, এটি ফরমায়েশি রায়। এই রায় সাধারণ মানুষ মেনে নেবে না। আপনাকে (শেখ হাসিনা) ক্ষমতা থেকে হটিয়ে বাংলার মাটিতে আপনার বিচার করা হবে। আপনি (শেখ হাসিনা) প্রস্তুত থাকুন।’

বিএনপির যুগ্ম সচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, তারেক রহমান ও তাঁর স্ত্রী জুবাইদা রহমানের বিরুদ্ধে প্রহসনের রায় দেওয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগ গণতন্ত্র হত্যাকারী দল হিসেবে পরিচিত। তারা (আওয়ামী লীগ) তারেক রহমানকে এতটাই ভয় পায়, তিনি (তারেক রহমান) কখন এ দেশে ছুটে আসেন, এমন অজানা আতঙ্ক ও ভয়ে থাকে।

সভায় আরও বক্তব্য দেন জাতীয়তাবাদী যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস।

এদিকে তারেক রহমান ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে দুদকের মামলার রায় ঘোষণার আগে থেকেই বিএনপির নেতা-কর্মীরা নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হতে থাকেন। বেলা আড়াইটার পর নেতা-কর্মীদের ভিড় বাড়তে থাকে। সাড়ে তিনটার পর নেতা-কর্মীরা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করেন।

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের দায়ে আজ বুধবার তারেক রহমানকে ৯ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই মামলায় তাঁর স্ত্রী জুবাইদা রহমানকে ৩ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। একই সঙ্গে আদালত তারেকের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ২ কোটি ৭৪ লাখ ৯৩ হাজার ৮৭ টাকার সম্পদ রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করার আদেশ দিয়েছেন। এ ছাড়া তারেককে ৩ কোটি টাকা ও জুবাইদাকে ৩৫ লাখ টাকা অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *