ফেনী- ৩ আসনে সাবেক এমপি রহিম উল্যাহর ঈগল মার্কার গণজোয়ার

সম্রাট আকবরঃ আসন্ন ৭ই জানুয়ারী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঈগল মার্কায় ভোট চেয়ে সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে, পাড়া মহল্লায় নির্বাচনী প্রচারণা ও গনসংযোগ করে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন ফেনী -৩ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক এমপি হাজী রহিম উল্যাহ। গণসংযোগ কালে সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলার ভোটারদের ব্যাপক জনসমর্থন পাচ্ছেন বলে জানান হাজী রহিম উল্যাহ।

বুধবার (২৭ডিসেম্বর) সকাল থেকে সোনাগাজী উপজেলার তাকিয়া বাজার, কুটির হাট, বক্তার মুন্সী, ডাক বাংলা, কাজির হাট সহ বিভিন্ন এলাকায় হাজার হাজার নেতাকর্মী নিয়ে ঈগল মার্কার নির্বাচনী প্রচারণা চালায় হাজী রহিম উল্যাহ। এসময় স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে প্রচারণায় মানুষের ঢল নেমে নির্বাচনী প্রচারণা জনসমুদ্রে রুপান্তরিত হয়েছে।

গণসংযোগ ও উঠান বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন সোনাগাজী উপজেলা শ্রমিকলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাফেজ আহমদ, আওয়ামীলীগ নেতা এম এম তালেব আলী, ফারুক আহমেদ, জাকির হোসেন, বাহার উল্লাহ, যুবলীগ নেতা আবদুল শুক্কুর ও আমিরাবাদ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ ফরিদ সহ আরো অনেকে।

ফেনী -৩ আসনের ২টি উপজেলার ২টি পৌরসভা এবং ১৭টি ইউনিয়নে গণসংযোগ ও উঠান বৈঠকে হাজার হাজার নারী ও পুরুষের উপস্থিতি দেখা গিয়েছে। উপস্থিত ভোটারদের সকলেই ঈগল মার্কার প্রার্থীর প্রচারণায় খুবই উচ্ছ্বসিত।

সোনাগাজী উপজেলার ২নং বগাদানা ইউনিয়নের বাসিন্দা রাসেল জানান হাজী রহিম উল্যাহ জনবান্ধব নেতা। তিনি এই আসনের এমপি থাকাকালীন এলাকার রাস্তা ঘাট সহ অসংখ্য মসজিদ মাদ্রাসা এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ ও সংস্কার করেছেন। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা এলাকাবাসী ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে আবারো হাজী রহিম উল্যাহ কে ফেনী -৩ আসনের এমপি নির্বাচিত করবো।

সাবেক এমপি হাজী রহিম উল্যাহ বলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার হাত ধরেই বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। আমি এমপি থাকাকালীন সময়ে সোনাগাজী – দাগনভূঞার জনসাধারণের জন্য আমার দরজা সবসময় খোলা ছিলো। আগামীতে এলাকাবাসী আমাকে ভোট দিয়ে পূনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত করলে পূর্বের ন্যায় এই আসনের জনগণের জন্য আমার দরজা সবসময় খোলা থাকবে। আমি আশাবাদী ৭ই জানুয়ারী ফেনী -৩ আসনের ভোটাররা ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে সোনাগাজী ও দাগনভূঞা উপজেলার উন্নয়ন এবং এলাকাবাসীর সেবা করার সুযোগ করে দিবে।

ফেনী -৩ আসনে হাজী রহিম উল্যার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী লাঙ্গল প্রতীকের মাসুদ চৌধুরী।

হাজী রহিম উল্যাহ দশম জাতীয় সংসদের এমপি হওয়ার পূর্বে দীর্ঘ ২১ বছর জেদ্দা মহানগর আওয়ামী পরিষদের সভাপতি ও সোনাগাজী উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জোটগত নির্বাচনের কারণে বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে এই আসনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *